মৃন্ময় ৭৬

এখানে বরফরাতগুলো হয় ঠিক মৃত্যুর মতই শীতল
সফেদ চাদরে ঢেকে যায় আপাদমস্তক ঘর-বাড়ী
টিলা-পাহাড়, মিনারগুলো ডুব সাঁতারে আকাশ ছোঁয়ার দলে
যেন গলা উচিয়ে বাঁচার আপ্রাণ চেষ্টায় ব্যাকুল।
কোলাহল নেই, পিঠার উৎসব-মাঠে আগুনের উত্তাপ নেই
ঝিমিয়ে থাকা শহুরে পথে কুয়াশা নেই
শিশির ঝড়ে নিষ্ঠুরতায় বরফ হয়ে, কি বিস্ময়
বৃক্ষের ঢালপালা পল্লববিহীন যেন কঙ্কালসার দেহ
কাফনে জড়িয়ে থাকা এ এক আজব শোকের শহর।
এ শহরে নিশিতে প্যাঁচার ডাক নেই
পিপাসীত কোকিলের গান নেই
ঝাউয়ের কিনার ঘেঁষে আকাশে তারাভরা রাত নেই
নীলাকাশে মধ্যাহ্নে সোনালি ডানার চিল নেই
যা আছে তা কেবল হৃদয়গ্রাহী শুভ্রতায় শোকের ছায়া
শেষ রাতের প্রথম প্রহরে আবেগী পায়ে
স্নিগ্ধতার সিঁড়ি বেয়ে সূর্য্যি আসেনা জ্বানালার গ্রীলের ফাঁকে
এইসব রাতে হৃদয় আন্দোলিত করে প্রেম আসেনা ঘরে
বেদনা জাগাতে বেতফলের মত ম্লান চোখ শুধু খুঁজে যায় তারে।
তবু বরফরাতগুলোতে মনের ব্যবধান রেখে
অসীমের সীমানায় হিম আছে জেনে নিয়ে
বুকের আঁচল বিছিয়ে তোমাকে আমন্ত্রণ জানাই।